সিডনী মঙ্গলবার, ৯ই মার্চ ২০২১, ২৫শে ফাল্গুন ১৪২৭


অবশেষে ফেসবুক ক্ষমা চাইলো অস্ট্রেলিয়ার কাছে


প্রকাশিত:
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪:১০

আপডেট:
৯ মার্চ ২০২১ ০৯:৫৬

 

প্রভাত ফেরী: সাইট বন্ধের জন্য অস্ট্রেলিয়া সরকারের কাছে ক্ষমা চেয়েছে ফেসবুক। আর অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ফেসবুকের ক্ষমা চাওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া সরকার একটি আইন প্রণয়ন করেছে। ওই আইন অনুসারে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ প্রকাশ করার জন্য দেশটির গণমাধ্যমকে অর্থ প্রদান করতে হবে ফেসবুক ও গুগলকে। কিন্তু ফেসবুক অস্ট্রেলিয়ার আইন না মানার হুমকি দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার নিউজ সাইট ব্লক করে।
গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়,অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ‘ফেসবুক সাময়িকভাবে তাদেরকে পুনরায় ফ্রেন্ড করেছে’ বললেও কোম্পানিটি অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত আইনের বিরোধীতায় পরিবর্তন আনবে না বলে জনসম্মুখে ইঙ্গিত দিয়েছে।
শুক্রবার ফেসবুকের এশিয়া প্যাসিফিকের সিনিয়র নির্বাহী সাইমন মিলনার অস্ট্রেলিয়ার সরকারি সংস্থা কর্তৃক পরিচালিত অ্যাকাউন্ট এবং রাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিভাগের অ্যাকাউন্ট ব্লক করার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন। প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ফেসবুকের সিনিয়র নির্বাহীর ক্ষমা প্রার্থনাকে স্বাগত জানান। ফেসবুকের সরকারি তথ্যের অ্যাকাউন্ট বন্ধের সিদ্ধান্তকে তিনি অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করেন।
সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এখন আমার কাজ হলো বিষয়গুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করব যাতে তাদের একটি সফল উপসংহারে আনতে পারি। অস্ট্রেলিয়ান সরকারের অবস্থান খুবই স্পষ্ট । বিশ্বব্যাপী অস্ট্রেলিয়ার অবস্থানকে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করা হয়েছে।
শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার কোষাধ্যক্ষ জোস ফ্রাইডেনবার্গ জানান মিডিয়ার বার্গেইনিং কোডের বিষয়ে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গকে রাজী করাতে তিনি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

 


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top