সিডনী বৃহঃস্পতিবার, ৬ই মে ২০২১, ২৩শে বৈশাখ ১৪২৮


কাপে চা শ্রমিকের রক্ত : রফিকুল নাজিম 


প্রকাশিত:
১ মে ২০২১ ১৩:০৯

আপডেট:
১ মে ২০২১ ১৩:২৬

 

চা বাগানে আসলেই আমাকে জাপটে ধরে বাতাস
ব্রিটিশ সাম্রাজ্য আমাকে ফুলেল অভ্যর্থনা জানায়,
আমাকে স্বাগত জানায় কাম প্রাচুর্যের এই নাচঘর
অথচ বাগানটা ইনিয়েবিনিয়ে শোষণের গল্প শোনায়!

চায়ের পাতা ফিসফিসিয়ে শতাব্দীর ব্যথার গল্প বলে
দু’টি পাতা একটি কুঁড়ি- শুধু মজলুমের ছবি আঁকে
সুরবালার শরীরের গোপন ভাঁজ-কামুক নাচ; গল্প বলে,
বড়বাবুর মায়াবী বীণে জাতসাপও বাক্সে বন্দি থাকে!

শ্রমিকের সরল হাসি যাপিত জীবন শোষণের কলে,
মাতাল নৃপেনের বুকের যন্ত্রণা আহা শোষণের গল্প বলে।
পুঁজিবাদে ‘শোষণ’ শব্দটি বেশ আদুরে, হাতিয়ারসম,
পুঁজিবাদে ‘বৈষম্য’ মুনাফার তাত্ত্বিক কবজ; হে প্রিয়তম!

লাইনে লাইনে রোদে পোড়া চা পাতার মাতাল ঘ্রাণ
আমাকেও আষ্টেপৃষ্ঠে বাঁধে বাগানের আদ্র বাতাস,
চা শ্রমিকের অক্ষিকোটরে আমি দেখি আগুন পাখি
দেখি ব্রিটিশ কায়দায় তাদের গলায় শোষণের ফাঁস!

ম্যানেজারের নিমন্ত্রণে চলে আমাদের চায়ের আড্ডা
লাল চায়ের মাতাল ঘ্রাণে আমার তন্দ্রা যায় কেটে,
হঠাৎ কিছু বাতাস এসে ভেঙ্গচি কেটে আমাকে বলে
বাহ! কী তুমুল তৃপ্তিতে চা শ্রমিকের রক্ত খাচ্ছো চেটে।

 

এই লেখকের অন্যান্য লেখা



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top