সিডনী মঙ্গলবার, ৯ই মার্চ ২০২১, ২৫শে ফাল্গুন ১৪২৭


অস্ট্রেলিয়া নীতিমালা থেকে সরবে না


প্রকাশিত:
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৩:১০

আপডেট:
৯ মার্চ ২০২১ ১১:২৮

 

প্রভাত ফেরী: গুগোল ও ফেইসবুকের প্রতিবাদের মুখেও অস্ট্রেলিয়ার এক জেষ্ঠ্য আইনপ্রণেতা দাবি করেছেন, অস্ট্রেলিয়া নীতিমালা বদলাবে না।

সংবাদ কনটেন্ট দেখাতে সংবাদমাধ্যমকে অর্থ দিতে হবে গুগল এবং ফেইসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোকে, সম্প্রতি এমন এক নীতিমালার প্রস্তাবনা করেছে অস্ট্রেলিয়া। ইতোমধ্যে নীতিমালার বিরুদ্ধে মৌখিক প্রতিবাদ জানিয়েছে বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো।

নীতিমালার বিরুদ্ধে জোর প্রতিবাদ জানিয়ে গত সপ্তাহেই দেশটিতে সব সংবাদ কনটেন্ট এবং বেশ কিছু সরকারি ও জরুরি বিভাগের অ্যাকাউন্ট ব্লক করেছে ফেইসবুক।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন বলছে, সোমবার সিনেটে নতুন এই বিল নিয়ে আলোচনা হবে। তবে, দেশটির উচ্চ কক্ষের জেষ্ঠ্যতম আইনপ্রণেতা দাবি করেছেন, নীতিমালায় আর কোনো পরিবর্তন করা হবে না।

দেশটির অর্থ মন্ত্রী সিমন বার্মিংহাম বলেছেন, “বিল যেভাবে আছে, সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখছে।”

বার্মিংহাম আরও বলেছেন, বর্তমান কাঠামোয় বিলটি নিশ্চিত করছে “অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ সংস্থার তৈরি অস্ট্রেলিয়ান সংবাদ কনটেন্টের অর্থ পাওয়া উচিত এবং এটি ন্যায্য ও বৈধ উপায়ে করতে হবে।”

ব্যক্তিগত দর কষাকষি ব্যর্থ হলে কনটেন্ট লাইসেন্সিং ফি নির্ধারণ করতে একজন বিচারক নিয়োগ দিতে সরকারকে ক্ষমতা দেবে এই আইন।

ফেইসবুক ও গুগল বলে আসছিল, প্রস্তাবিত ওই আইন ইন্টারনেটের মৌলিক ধারণার সঙ্গেই সাংঘর্ষিক। অস্ট্রেলিয়া সরকার অন্যায্যভাবে তাদের ‘শাস্তির মুখে’ ফেলছে।

সেই অবস্থান থেকে কিছুটা নমনীয় হয়ে গুগল রুপার্ট মার্ডকের নিউজ কর্পোরেশনকে লাভের ভাগ দিতে সম্মত হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মাথায় ফেইসবুক দেশটিতে নিউজ কনটেন্ট বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।

সোমবার বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি ফেইসবুকের এক প্রতিনিধি।

গত সপ্তাহেই অস্ট্রেলিয়ার নিম্ন কক্ষে পাস হয়েছে আইনটি এবং সিনেটে বেশিরভাগ সমর্থন পেয়েছে।

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top