সিডনী রবিবার, ৩রা জুলাই ২০২২, ১৯শে আষাঢ় ১৪২৯


বাসভূমির মাকে মনে পড়ে কাঁদিয়েছে দর্শকদের


প্রকাশিত:
১৪ জুন ২০২২ ১৬:৪৪

আপডেট:
৩ জুলাই ২০২২ ১৩:৪৭


১২ জুন, রোববার অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অনুষ্ঠিত হলো প্রবাসীদের প্রতীক্ষিত বাসভূমির ‘মাকে মনে পড়ে’ অনুষ্ঠান। মা’কে নিয়ে একটি আবেগময় সন্ধ্যায় সবাই আপ্লুত হয়েছেন। সিডনির শুদ্ধধারার প্রায় সকল সংগঠনের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানটি আরো শুদ্ধ ও প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মাকে নিয়ে আবেগ ভালোবাসা, মা হারা সন্তানের আকুতি স্মৃতিকথা গল্পে গানে নাচে ও নাটিকায় অসাধারন দক্ষতায় তুলে ধরেছেন প্রত্যেক শিল্পী। অনুষ্ঠানে মাকে নিয়ে একটি আবেগময় মিউজিক ভিডিও প্রদর্শিত হয়। আকিদুল ইসলামের লেখা গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম।


সারস নামের বর্তমান প্রজন্মের এক কিশোরের বেহালায় জাতীয় সংগীতের মূর্ছনা দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। এরপর একে একে গান পরিবেশন করেন নিলুফা ইয়াসমিন, মারিয়া মুন, রাসেল ইকবাল, সমির রোজারিও, মধুমিতা সাহা ও ইভানা খালেদ। গীতিআলেখ্য পরিবেশন করেন চারু গানের দলের শিল্পী আয়েশা কলি, নামিদ ফারহান, আসিফ ইকবাল ও সুহৃদ সোহান হক।


অনুষ্ঠানে মা’কে নিয়ে নৃত্য পরিবেশন করেন মিশা চৌধুরী, মৌসুমী সাহার নৃত্যাঞ্জলি ডান্স একাডেমি, শ্রেয়সী দাসের নেতৃত্বে নটরাজ ডান্স একাডেমি এবং তাফতুন নাইম নিতুর পরিচালনায় বাফার শিল্পীরা। প্রবাসে বেড়ে ওঠা সন্তানকে নিয়ে বৃষ্টি হোসেনের স্মৃতিচারণ এবং সোলায়মান দেওয়ান দানির প্রয়াত মাকে নিয়ে জীবনের গল্প সবার চোখ ভিজিয়ে দেয় । পলি ফরহাদ, শারমিন আক্তার ও রতন কুন্ডুর অংশগ্রহণে একটি শ্রুতিনাটক অনুষ্ঠানে আলাদা মাত্রা সংযোজন করেছিল।


অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের জন্য সৌজন্যমুলক নৈশভোজের ব্যবস্থা করেছিলো ধানসিঁড়ি রেস্তোরা। শুভ সাথীর দেয়া লাল গোলাপ হাতে নিয়ে প্রত্যেক দর্শক অডিটরিয়ামে প্রবেশ করেন। এছাড়া বাফা দিয়েছে সকল মাকে গহনা, মহিলা আওয়ামীলীগের চকলেট, ফাগুন হাওয়া সবাইকে দিয়েছে পানীয়, আমাদের কথার মিষ্টি, নৃত্যাঞ্জলি ড্যান্স একাডেমির পিঠা, কানিতাস এর মিষ্টি পান ও মেকাপ বাই নাহিদা সুলতানার মোমবাতি ছিল ব্যতিক্রমী আয়োজন। উপস্থাপিকা শামীমা সুমীর গহনা স্পনসর করেছে আরোরা আরোরার ফাহমিদা শারমিন। আর শাড়ি স্পনসর করেছে শাড়ি-বি এর সামিয়া ইসলাম।

 


অনুষ্ঠানে চারজন মাকে বাসভূমির পক্ষ থেকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। পুরো অডিটোরিয়াম ছিল কানায় কানায় দর্শক পূর্ণ। অডিটোরিয়াম সজ্জায় ছিল প্রত্যাশা ওয়ার্ড। ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট করেছে ইভেন এক্স। অনুষ্ঠানে প্রধান স্পন্সর ছিল প্রভাত ফেরী। বিশেষ স্পন্সর হিসেবে ছিল নূর বিউটিজ। এ ছাড়াও এই অনুষ্ঠান আয়োজনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি বাসভূমিকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছে। এদের মধ্যে অন্যতম স্ট্যামফোর্ড এডুকেশন, এপোলো ইন্টারন্যাসনাল এডুকেশন, টেলিওজ কমিউনিকেশন, স্টারকিডস, আফরিনা চৌধুরী, প্যাসেফিক হোম রিয়েল স্টেট, টিএম এলিয়েন্স মটরস, নওয়াব রেস্টুরেন্ট, ইএসআই গ্লোবাল সার্ভিসেস, ডবল এ ফাইনেন্স, মেজবানী, প্যাপিলন্স রেস্টুরেন্ট, স্বদেশ বার্তা, স্বদেশ বার্তা ইন্টারটেইনমেন্ট, জাহিদ হোসেন।
অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন শামীমা সুমী, তাফতুন নাঈম নিতু, আয়েশা মানহার এবং আকিদুল ইসলাম।


বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top